সোমবার, ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং। ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ১০:১০








প্রচ্ছদ » বিভিন্ন সংবাদ

মাঝরাতে তরুণীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডা, বরখাস্ত ৫ পুলিশ সদস্য

রাজধানীতে গভীর রাতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার যাত্রী এক তরুণীর সঙ্গে পুলিশ সদস্যদের ‘অশালীন আচরণের’ ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় পুলিশের দায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।তবে ঘটানটি পরিকল্পিত ভাবে করা হয় ।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত পাঁচ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। যথাযথ তদন্তের পর ঘটনাস্থলে উপস্থিত পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্ট-পিএমও’র ৫ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় ঢাকা মহানগর পুলিশ।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

এ ধরনের ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হলে সমাজে নারীর প্রতি সহিংসতা বেড়ে যাবে বলে মনে করছেন মানবাধিকারকর্মীরা। অন্যদিকে কোনো ব্যক্তির কর্মের দায় পুরো বাহিনীর ভাবমূর্তি যাতে ক্ষুন্ন করতে না পারে সেদিকে সতর্ক থাকার পরামর্শ সাবেক পুলিশ মহাপরিদর্শকের।

সোমবার (২২ অক্টোবর) মধ্যরাত। হাতিরঝিলের পুলিশ চেকপোস্টে অটোরিকশার এক তরুণী যাত্রীকে তল্লাশি চালাচ্ছিলেন দায়িত্বরত একাধিক পুলিশ। অভিযোগ, তল্লাশি করতে গিয়ে প্রথমে বাদানুবাদ, তর্ক বিতর্ক এরপর তরুণীকে উদ্দেশ্য করে অশালীন মন্তব্য করেন নিরাপত্তার দায়িত্বে নিযুক্ত পুলিশ। নিজের মোবাইল ফোনে ধারণ করে আপলোড করা সে ভিডিওই কাল হয়ে দাঁড়ায় দায়িত্বরত পুলিশের। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায় নারী যাত্রীর সঙ্গে দায়িত্বরত পুলিশের বাদানুবাদের দৃশ্য।

নারীর সম্মান আর নিরাপত্তা বিবেচনায় এনে প্রতিবাদে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলে সমালোচনা, ঘটনার তদন্ত করে অভিযুক্ত পুলিশের বিচার দাবি করেন সচেতন নাগরিক।

অভিযোগ আমলে নিয়ে মঙ্গলবার (২৩ অক্টোবর) রাত ৮টায় ডিএমপির ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ থেকে দেয়া হয় বিশেষ বিবৃতি। অভিযুক্তদের শনাক্ত করে ব্যবস্থা নেয়ারও ঘোষণা দেন তারা। আর তার কয়েক ঘণ্টা পরেই সাময়িক বরখাস্ত করা হয় ৫ পুলিশ সদস্যকে। বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন বলেও জানানো হয়।

মানবাধিকারকর্মীরা বলছেন, তথ্য প্রযুক্তি আইনে অভিযুক্ত পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা করা আইনসম্মত আর পেশাগত দায়িত্ব পালন করার পাশাপাশি সব পুলিশ সদস্যকে মানবিক মানুষ হয়ে ওঠার পরামর্শ সাবেক পুলিশ মহাপরিদর্শকের।

এ সময় মানবাধিকারকর্মী অ্যাডভোকেট এলিনা খান বলেন, দেখতে পাবে কালকে তোমার কি হয়? এই যে এক ধরনের ধমক, তারপরেই কিন্তু এটা ভাইরাল হয়েছে। মানে মেয়েটাকে অপমান করার জন্য এই ভিডিও করা হয়েছে। যে এই ভিডিওটি করেছে, তাকে উপযুক্ত শাস্তি দেয়া হোক।’

এ ঘটনার ব্যাপারে  সাবেক পুলিশ মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক বলেন, ওনারা মাঠে দিনে রাতে কাজ করে। তিনি সাধারণ একজন কনস্টেবল হতে পারে। কিন্তু তার দায়িত্ব তো অনেক বেশি। তারা রাষ্ট্রের একটি সম্মানজনক পোশাক পরে তাদের আচরণে পরিবর্তন আনতে হবে।অনুমতি ছাড়া মোবাইলে দৃশ্য ধারণ করে ভাইরাল করার প্রবণতা অপরাধের পর্যায়ে পড়ে বলেও মনে করছেন তারা। এ অপরাধ রোধ করতে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার কথাও জানান তারা।

উল্লেখ্য,ঘটনার সময় ওই নার‌ী এসব ঘটনার প্রতিবাদ করলে তার পরিবারের সদস্যদের নিয়েও খারাপ মন্তব্য করেন পুলিশ সদস্যরা। ওই তরুণীর ব্যাগ তল্লাশির কথা বলে তার অটোরিকশা থামিয়েছিল পুলিশ। তবে তরুণী একাধিকবার তার ব্যাগ তল্লাশি করতে বললেও তা না করেই তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।তবে এক পুলিশ সদস্যে এ ঘটনার ভিডিও ধারন করে  তারাই এ ভিডিও ফেসবুকে ছেড়ে দেয় ।

 

গভীর রাতে রাজধানীর সড়কে তরুণীর সঙ্গে পুলিশের ‘অশালীন আচরণ’

গভীর রাতে তরুণীর সঙ্গে পুলিশের ‘অশালীন আচরণ’ রাজধানীতে গভীর রাতে অটোরিকশার যাত্রী এক তরুণীকে থামিয়ে ‘অশালীন আচরণ’ করেছেন পুলিশের একাধিক সদস্য। গতকাল রাতে রামপুরায় এ ঘটনা ঘটে।

Posted by Amader Shomoy on Tuesday, October 23, 2018

 

Share Button

error: Content is protected !!