সোমবার, ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং। ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ১০:০৯








প্রচ্ছদ » বিনোদন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইস্যুঃ মোটেই শান্তিতে নেই বুবলী!

হালের বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় একজন নায়িকা হলেন বুবলি। প্রথমে সংবাদ পাঠিকা হিসেবে মিডিয়ায় যাত্রা শুরু করলেও ধীরে ধীরে তিনি শাকিব খানের মাধ্যমে চলে আসেন সিনেমা জগতে। কিন্তু সিনেমা জগত থেকেও তিনি বেশি আলোচিত তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে।

তবে ক্যারিয়ারের দুর্দান্ত সময় কাটানো এই নায়িকা এখন মটেই শান্তিতে নেই। হঠাৎ করেই যেন উধাও হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। এমনকি, গণমাধ্যমকর্মীদের ফোনও ধরছেন না।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

পরে জানা গেছে, ‘একটি প্রেম দরকার’ সিনেমার শুটিংয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। শুটিং হচ্ছে শাকিবের বাড়ি জান্নাতে। তাহলে ফোন ধরছেন না কেন! এমন প্রশ্নে এক বার্তা পাঠালেন বুবলী, তিনি এখন মানসিকভাবে কথা বলার অবস্থায় নেই। প্রচন্ড মানসিক অশান্তিতে আছেন। কেন এই অবস্থা সে বিষয়ে অবশ্য খোলাসা করে কিছু বলেননি।

তবে অনেকটা যেন আঁচ পাওয়া গেল যে ভাইয়ের কারণেই এমনটা হতে পারে ঢালিউডের বর্তমান কুইনের। সি‌নেমার গ‌ল্পের ম‌তোই হঠাৎ তু‌খোড় মেধাবী হ‌য়ে গেল না‌য়িকা বুবলীর ছোট ভাই জাহিদ হাসান আকাশ। গ ইউনিটের পরীক্ষায় যে পাসই করেনি, আর ঘ ইউ‌নি‌টেই তিনি হয়ে গেলেন প্রথম।

জাহিদ হাসান আকাশ ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছেন। গত ১২ অক্টোবর তিনি ঢাবির সমাজ বিজ্ঞান অনুষদে ভর্তির জন্য ঘ ইউনিটে পরীক্ষা দেন। সেখানে ব্যবসায় শাখা বিভাগে প্রথম স্থান অধিকার করেছেন। অথচ ব্যবসায় শিক্ষা শাখার এই শিক্ষার্থী বাণিজ্য অনুষদে ভর্তির জন্য দেওয়া গ ইউনিটের পরীক্ষায় ফেল করেছিলেন।

ঢাবির গ ইউনিটের পরীক্ষায় ফলাফলে দেখা যায় তিনি বাংলায় পেয়েছিলেন ১০.৮, ইংরেজিতে পেয়েছিলেন ২.৪০। অথচ এই শিক্ষার্থী ঘ ইউনিটের পরীক্ষায় বাংলায় ৩০ এর মধ্যে ৩০, ইংরেজিতে ৩০ এর মধ্যে ২৭.৩০ পেয়েছেন। যা রেকর্ডই বলা যায়।

ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে আসা এই শিক্ষার্থী ঢাবির গ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় সর্বমোট ১২০ নম্বরের মধ্যে পেয়েছিলেন ৩৪.৩২। অথচ মাত্র এক মাসের ব্যবধানে ঘ ইউনিটের পরীক্ষায় মোট ১২০ নম্বরের মধ্যে তিনি ১১৪.৩০ পেয়ে সম্মিলিত মেধাতালিকার বাণিজ্য শাখায় প্রথম স্থান অধিকার করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বলছে, গত ২০ বছরে ১২০ এর মধ্যে ১১৪.৩০ কেউ পায়নি। দ্বিতীয় স্থানে যিনি রয়েছেন তিনি ১২০ এর মধ্যে পেয়েছেন ৯৮.৪০। মেধাক্রমে যার ব্যবধান অনেক।

উল্লেখ্য, যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের পুনরায় ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যলয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক সম্মান শ্রেণিতে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত অভিযোগে ছয়জনকে গ্রেপ্তারও করেছে পুলিশ।

Share Button

error: Content is protected !!