শনিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং। ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ। বিকাল ৫:২১








প্রচ্ছদ » রাজনীতি

কেউ ১০ মিনিট কোনো ফাইল সই করবেন না’

গত কয়েকদিন ধরে অলোচনায় সামালিচিত ঘটনাটি ।ঘটনাটি ঘটেছিল কয়েকদিন আগে এক টিভি চ্যানেলের টক শোতে। সেখানে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন বলে উল্লেখ করেন আর তখন থেকেই শুরু হয় সব বিপত্তি। এই ব্যপারে দায়ের করা হয়েছে মামলা।দুটি মামলায় মইনুল হাইকোর্ট থেকে জামিন নিলেও রংপুরে দায়ের করা একটি মামলায় তাকে রাতে আ স ম আব্দুর রবের উত্তরার বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে কটূক্তি করার পর নানাদিক থেকে সমালোচনার মুখোমুখি হন ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার সচিবালয়ে নিজের দপ্তরে সাংবাদিকদের সামনে মইনুল হোসেনের শাস্তি দাবি করেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

এসময় তারানা হালিম জানান, এই কটুক্তির প্রতিবাদে ১০ মিনিট কোনো ফাইল সই করবেন না। ব্যারিস্টার মইনুল পুরো সাংবাদিক সমাজকে আক্রমন করে কথা বলেছেন। তাই গণ্যমাধ্যম কর্মীদের উচিত কমপক্ষে ১ ঘণ্টা হলেও কর্মবিরতি পালন করা।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ অক্টোবর রাতে একাত্তর টেলিভিশনের নিয়মিত আয়োজন একাত্তর জার্নাল-এ রাজনৈতিক সংবাদের বিশ্লেষণ চলছিল। অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন উপস্থাপিকা মিথিলা ফারজানা। এতে অতিথি ছিলেন মাসুদা ভাট্টি ও সাখাওয়াত হোসেন সায়ন্ত। আলোচনায় স্টুডিওর বাইরে থেকে যুক্ত হন ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন।

আলোচনার ফাঁকে মাসুদা ভাট্টির প্রশ্ন ছিল, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি আলোচনা চলছে, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন ঐক্যফ্রন্টে জামায়াতের প্রতিনিধিত্ব করছেন কিনা?

এর জবাবে ব্যারিস্টার মইনুল বলেন, আপনার দুঃসাহসের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি। আপনি চরিত্রহীন বলে আমি মনে করতে চাই। এরপর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচনার ঝড় ওঠে।

এ নিয়ে ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে গত রোববার ঢাকার মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে একটি মানহানির মামলা করেন মাসুদা ভাট্টি।  বর্তমানে কারাগারে আছেন ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন।

আরও পড়ুন>>> ভালোবাসা কি
আরও পড়ুন>>> ভালোবাসার গল্প
আরও পড়ুন>>> প্রেমের গল্প