শনিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং। ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ। সন্ধ্যা ৬:০৮








প্রচ্ছদ » জাতীয় সংবাদ

‘খেত পান্তা ভাত, এখন ইংরেজি খাবার ছাড়া চলেই না’!

আজ সোমবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সম্প্রতি সৌদি আরব সফর নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এভাবে কোনো নারীকে অশালীন ভাষায় গালাগাল জঘন্য ও ন্যাক্কারজনক। তার বিরুদ্ধে মামলা হলে সরকার ব্যবস্থা নেবে।’

জবাবে প্রধানমন্ত্রীও এই ইস্যুতে সাংবাদিক ও নারী সংগঠনের ভূমিকার কড়া সমালোচনা করেন। এ সময় তিনিও মইনুল হোসেনের ‘চরিত্রের’ ফিরিস্তি তুলে ধরেন। মইনুল হোসেনকে পাকিস্তানি হানাদারদের ‘দালাল’ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যে লোক কটূক্তি করলেন, তার বাচনভঙ্গি ও এটিচুড খারাপ।

একাত্তরে তিনি হানাদারদের দালালি করতেন। জাতির পিতার আত্মস্বীকৃত খুনিদের নিয়ে তিনি রাজনৈতিক দলও গঠন করেছিলেন। তার কাছ থেকে জাতি ভাল ও ভদ্র ব্যবহার কীভাবে আশা করে?’ তিনি বলেন, ‘মইনুলের গুণের শেষ নাই। উনি গেসিলেন ব্যারিস্টারি করতে, মানিক কাকা (মইনুলের বাবা তোফাজ্জল হোসেন মাকিন মিয়া) পাঠালেন।

ব্যারিস্টারি পাস করে আসার পর তিনি সাহেব হয়ে গেলেন। আগে পান্তা ভাত খেত, এখন কাকার ছেলে স্বাভাবিক খাবার খেতে পারেন না। সাহেবি খাবার খেতে হবে, ইংরেজি খাবার। এজন্য আলাদা বাবুর্চি রাখতে হবে। সেই সময় ১০০ টাকা দিয়ে ইংরেজি খাবারের জন্য বাবুর্চি রাখা হয়েছিল তার জন্য।’

আরও পড়ুন>>> ভালোবাসা কি
আরও পড়ুন>>> ভালোবাসার গল্প
আরও পড়ুন>>> প্রেমের গল্প