কুয়েতে আগামী ২২ শে ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আংশিক লকডাউন

উপসাগরীয় দেশ কুয়েতে জাতীয় ছুটি শুরু আগপ ২২ শে ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আংশিক ‘লকডাউন’প্রস্তাব মন্ত্রিপরিষদের টেবিলে রয়েছে।
এ বিষয়ে আরও জানা যায়,

কুয়েতের জাতীয় ছুটির সময় আংশিক ‘লকডাউনের উদ্দেশ্য জনসমাগম সীমাবদ্ধ করা, যাহা কোভিড -১৯ মামলার সংখ্যা বাড়িয়ে তুলতে পারে।

যেহেতু স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ শেখ বাসেল বলেছেন যে, করোনাভাইরাস সংক্রমণের সংখ্যা বৃদ্ধি এবং নতুন রূপগুলির উত্থান যা ‘কোভিড -১৯’ এর চেয়ে বেশি বিপজ্জনক, তাই আংশিক লকডাউনকে গুরুত্বপূর্ণ ভাবছে কতৃপক্ষ।

করোনা মহামারী সম্পর্কে কুয়েতের মন্ত্রিসভা জারি করা সিদ্ধান্ত রবিবার (৭ ফেব্রুয়ারী) থেকে কার্যকর হবে। ২ সপ্তাহ কোন বিদেশী নাগরিক কুয়েতে প্রবেশ করিতে পারিবেনা, সেলুন ও ক্লাবগুলি পুরোপুরি বন্ধ এবং হোটেল ও শপিংমলের সময়সুচী সীমিত।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী শেখ ডাঃ শেখ বাসেল আল-সাবাহ মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকের পরে সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন যে, “বিশ্বে সংক্রমণের সংখ্যা বৃদ্ধি এবং নতুন স্ট্রেনের উত্থানের কথা প্রত্যেকেের জানা এবং আমরা বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন নই,

এবং সতর্ক করে মন্ত্রী বলেছিলেন, অনেকে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করছে, যাহা খুবই বিপদজনক।